শিরোনামঃ

আজ বৃহস্পতিবার / ২৭শে শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / বর্ষাকাল / ১১ই আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ / ১২ই মহর্‌রম ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় সকাল ১০:৪৯

চাটমোহরে তিন দিন ব্যাপী ঐতিহ্যবাহী চড়ক পূজা ও মেলা শুরু

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি : পাবনার চাটমোহরে বড়াল নদী পাড়ের বোঁথর মহাদেব মন্দির প্রাঙ্গনে শনিবার থেকে শুরু হয়েছে শ্রী শ্রী মহাদেব পূজা, উপমহাদেশের বিখ্যাত চড়ক পূজা ও ৩ দিনব্যাপী মেলা। হিন্দু সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে এই চড়ক মেলা চলে আসছে হাজার বছর ধরে। একটি চড়ক গাছকে কেন্দ্র করে চৈত্রের শেষ সপ্তাহে এই মেলা বসে। চৈত্র মাসের শেষ দিন থেকে শুরু হয়ে চলবে তিনদিন ব্যাপী। আগে মেলা চলত পুরো বৈশাখ মাসব্যাপী।
পাবনার চাটমোহরের ঐতিহ্যবাহী বোঁথড় চড়ক মেলার সেই জৌলুস আজ আর নেই। তবুও আছে চড়ক গাছ, পাঠ ঠাকুর, বিগ্রহ মন্দির। তাই বছর শেষের এ মাসটিতে এখনো মেলা বসে, টিমটিম করে হলেও চলে তিনদিন ব্যাপী। বোঁথড়ের চড়ক মেলা দারিদ্র্যে জর্জরিত পশ্চাৎপদ বিল পাড়ের গ্রামীণ মানুষের এক ঘেঁয়ে নিরানন্দ জীবনে সাময়িকভাবে হলেও আনে কিছুটা বৈচিত্র্যের স্বাদ।
এমন এক সময় ছিল, যখন মেলার দেড়-দু’মাস আগেই বড়াল নদীর পাড়ের চাটমোহর উপজেলার বোঁথর গ্রামটিতে পড়ে যেত সাজসাজ রব। দূর-দূরান্ত থেকে দোকানিরা এসে তাদের পসরা সাজিয়ে বসত। দুঃসাহসিক আর গা শিউরানো নানান খেলাসহ যাত্রা, নাগরদোলা, জাদু প্রদর্শন, ঘোড়দৌড় ও পুতুল নাচের এক দীর্ঘমেয়াদি উৎসব আমেজে ভরে উঠত গোটা অঞ্চল। এখন ঘর-বাড়ি আর স্থাপনায় সংকুচিত হয়েছে মেলার জায়গা। মেলার বুক চিঁরে মহাদেব মন্দিরের সামনে দিয়ে বয়ে গেছে পাকা সড়ক।

বোঁথড় চড়ক মেলার জৌলুস কমলেও এখনো ঐতিহ্যবাহী আনুষ্ঠানিকতা আছে। বাঙ্গালী লোক সংস্কৃতির এই বৃহৎ উৎসবটি এখন মহাকালের সাী হয়ে কোনোমতে টিকে আছে মাত্র। মন্দির চত্বরেই বিখ্যাত চড়ক মেলা। এই পূজা অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য আইন শুঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

অধ্যাপক ডাঃ কমলকৃষ্ণ কুন্ডু কর্তৃক নির্মিত শ্রী শ্রী হরিমন্দির ও নাট মন্দির উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন করেন ভারতীয় দূতাবাস রাজশাহীর সহকারী হাই কমিশনার সঞ্জিব কুমার ভার্ট্টি। প্রধান অতিথি ছিলেন ভূমি মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাংসদ আলহাজ্ব মোঃ মকবুল হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন পাবনা জেলা প্রশাসক মোঃ জসিম উদ্দিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (চাটমোহর সার্কেল) ফজল ই খুদা পলাশ, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আঃ হামিদ মাস্টার, পৌর মেয়র মির্জা রেজাউল করিম দুলাল, ইউএনও সরকার অসীম কুমার, থানার ওসি সেখ মোঃ নাসীর উদ্দিন, বিলচলন ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী।
চড়ক পূজায় রবিবার সারাদিন পূজা-অর্চনা শেষে গোধূলী লগ্নে চড়ক গাছ ঘুরানো হবে। গাছ ঘুরানোর দৃশ্য দেখতে হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটবে। সোমবার মহাদেব বিগ্রহ বিসর্জন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap