শিরোনামঃ

আজ শনিবার / ২৫শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / হেমন্তকাল / ১০ই ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ / ১৫ই জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় সকাল ১০:১০

ভালবাসার প্রতিদান মৃত্যু

সুজানগর (পাবনা) প্রতিনিধি : পাবনার সুজানগরে বিয়ের প্রলোভনে এক কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কথিত প্রেমিক ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে। আর এ অপমান সইতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন ওই কলেজছাত্রী।

গত বৃহস্পতিবার (০১ নভেম্বর) রাতে এ ঘটনা ঘটলেও চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (০৫ নভেম্বর) রাতে মৃত্যু হয় ওই কলেজছাত্রীর।

পুলিশ ও পরিবার জানায়, সুজানগর উপজেলার হাটখালী ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের মেয়ে এবং মালিফা সেলিম রেজা হাবিব ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের জনৈক ছাত্রী (১৫) এর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে একই এলাকার মৃত রজব আলীর ছেলে দুই মেয়ের বাবা ছোবদুল খানের।

এরই জের ধরে গত বৃহস্পতিবার (০১ নভেম্বর) রাতে কলেজছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে কাশিনাথপুরে ডেকে নিয়ে মামাতো ভাই নুরুল ইসলামের সহায়তায় পালাক্রমে ধর্ষণ করে প্রেমিক ছোবদুল ও তার সহযোগীরা।

পরদিন শুক্রবার (০২ নভেম্বর) এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকী দিয়ে কলেজছাত্রীকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় অভিযুক্তরা। বাড়ি ফিরে এ অপমান সইতে না পেরে ওইদিনই একটি চিঠি লিখে বিষপান করে ধর্ষণের শিকার কলেজছাত্রী। প্রথমে তাকে ভর্তি করা হয় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (০৫ নভেম্বর) রাতে মৃত্যু হয় ওই কলেজছাত্রীর।

এদিকে, বিষপানের আগে অথবা বিষপানের সময় একটি চিঠি লিখে রেখে গেছেন কলেজছাত্রী। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘‘আজ আমি বড় সংকটে পড়ে নিজের জীবন শেষ করে দিলাম। আর মৃত্যুর জন্য দায়ী রিপন (নুরুল ইসলাম রিপন) ও তার বউ এবং ছোবদুল। লাভ’র (ভালবাসা) প্রতিদান মৃত্যু’’।

সুজানগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শরিফুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার দুপুরে ময়না তদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় কলেজছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে সোমবার রাতে ছোবদুলকে এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। চিঠির বিষয়ে ওসি জানান, চিঠির বিষয়টি জানা নেই। তদন্তে সব বেরিয়ে আসবে।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap