শিরোনামঃ

আজ বুধবার / ২রা ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / শরৎকাল / ১৭ই আগস্ট ২০২২ খ্রিস্টাব্দ / ১৮ই মহর্‌রম ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় রাত ৯:২৫

বান্ধবীকে অশ্লীল মন্তব্য করায় খুন হয় অনি, ঘাতক বন্ধু আটক

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনায় স্কুলছাত্র আবির মাহমুদ ওরফে অনি বাবু হত্যার রহস্য উৎঘটন করেছে পুলিশ। ঘটনার সাথে জড়িত সহপাটি বন্ধু জয়নাল আবেদীন জয়কে আটক এবং হত্যায় ব্যবহৃত ছোরাসহ অনির দু’টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

আটক জয় দুবলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র এবং একই গ্রামের জিয়াউর রহমান ও স্থানীয় ইউপি সদস্যা রুমা আক্তার রোজিনার ছেলে।

গেল শুক্রবার আতাইকুলা থানার দুবলিয়া পুলিশ ফাঁড়ির সামনের একটি বাগান থেকে মাটি খুড়ে ৮ম শ্রেণীর ছাত্র আবির মাহমুদ ওরফে অনি বাবুর লাশ উদ্ধার হয়। হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে জয়নাল আবেদীন জয়।

আতাইকুলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, নিহত অনির ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের কললিষ্ট ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তার একই শ্রেণিতে পড়ুয়া বন্ধু জয়কে নিজ বাড়ী থেকে শুক্রবার সন্ধ্যায় আটক করা হয়।

বন্ধু হত্যাকারী জয়নাল আবেদীন জয়ের শনিবার আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীর বরাত দিয়ে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, দুবলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র অনি ও জয়। তারা দুজনেই গাম ড্রাগ (আঠা জাতীয়) নেশায় আসক্ত। তারা মাঝে মধ্যেই একটি বাগানে (হত্যাকান্ডের স্থানে) বসে ড্রাগ গ্রহণ করত।

ঘটনার দিন সন্ধ্যায় জয় অনিকে ফোন করে ঘটনাস্থলে নিয়ে যায় এবং দু’জনেই মাদকে আসক্ত হয়। এসময় অনি মোবাইল ফোনে ছবি দেখে জয়ের মেয়ে বন্ধুকে নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য করে। এতেই জয় ক্ষিপ্ত হয়ে তার কাছে থাকা চাকু দিয়ে অনির পেটে আঘাত দেয়। আহত অনি আত্মরক্ষার্থে পালাতে গিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে মাটিতে পড়ে গেলে জয় চাকু দিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়। পরে লাশ গোপন করতে অপর বন্ধুকে ফোন করে নিয়ে দু’জন মিলে লাশ মাটি চাপা দেয়।

আতাইকুলা থানা পুলিশ অনির মোবাইল ফোন নম্বর ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে দুবলিয়া গ্রামের জিয়াউর রহমান ও স্থানীয় ইউপি সদস্যা রুমা আক্তার রোজিনার ছেলে জয়নাল আবেদীন জয়কে আটক করে। জয়ের নিকট থেকে অনির ব্যবহৃত দুইটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। শনিবার ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীর শেষে আদালত জয়কে কারাগারে প্রেরণ করেছে।

উল্লেখ্য, ২৬ নভেম্বর সন্ধায় অনি বাড়ির কাছে দুবলিয়া বাজারে তার বাবার টিনের দোকান থেকে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ হবার পর তার বাবা রবিউল প্রামানিক ২৭ নভেম্বর আতাইকুলা থানায় জিডি করেন। ৩০ নভেম্বর শুক্রবার খবর পেয়ে দুবলিয়া বাজার পুলিশ ক্যাস্প থেকে আনুমানিক ৩০ গজ দুরে একটি বাগানের মধ্যে মাটি খুড়ে পুলিশ অনির লাশ উদ্ধার করে।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap