শিরোনামঃ

আজ শনিবার / ১৪ই মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / শীতকাল / ২৮শে জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ / ৫ই রজব ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় সকাল ৬:১৮

“বাংলাদেশ আজ মেতেছে খেলায়” শিরোনামের বিশ্বকাপের থিম সং টি সৌরভ এর কথা ও সুরে

শরিফা বেগম শিউলী, স্টাফ রিপোর্টার : বিশিষ্ট সাংবাদিক, ইসমাইল হোসেন সৌরভ এর কথা ও সুরে কন্ঠ দিয়েছেন দুই বাংলার পরিচিত মুখ বাংলাদেশের উজ্জ্বল নক্ষত্র জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী ও কম্পোজার শান সায়েক এর সুরেলা কণ্ঠের সাথে কন্ঠ দিয়েছেন জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী তরুণ প্রজন্মের অহংকার সুজন আহমেদ।

তার সাথে সুরের ঝঙ্কার তুলেছেন উদীয়মান কন্ঠ শিল্পী সংগীত প্রেমি রাকিব স্টালিন , তাদের সাথে তালে তাল মিলিয়েছেন ইসমাইল হোসেন সৌরভ।গানটির দারুণ মিউজিক কম্পোজ করেছেন শান সায়েক।বাংলাদেশ আজ মেতেছে খেলায় ক্রিকেট বিশ্বকাপ থিম সং টি বাংলাদেশের জনপ্রিয় ও বহুল আলোচিত মিডিয়া প্লাটফর্ম মিউজিক আর্ট (music Art) YouTube চ্যানেল থেকে মুক্তি পেলো ১৬ অক্টোবর ২০২২।

দক্ষিণ বঙ্গে জন্ম বলেই সাগরের মতো বিশাল মন নিয়ে বেড়ে ওঠা বরগুনার কৃতি সন্তান ইসমাইল হোসেন সৌরভ এর।ছোট বেলা থেকেই সংস্কৃতিমনা ছিলেন তিনি। তিনি একাধারে গীতিকার, সুরকার, সর্বোপরি সমাজের একজন চিন্তাবিদ, দেশ মাটি ও মানুষের মাঝে তার সকল চাওয়া পাওয়া।এই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে সর্বোচ্চ শিখরে। তাই আকাশ ছুঁয়ে দেখার দৃঢ়তায় স্বপ্নবুনে যাচ্ছেন তিনি।মাঠে ওরা ১১ জন, পাশে আমরা ১৬ কোটি বাঙালী।

স্বপ্ন একটাই শিরোপা জয়ের। তাই মাঠের উম্মোদনা শতগুণ বাড়াতে বাঙালীর হৃদয়ে দোলা দিতে এবারের আসরের সেরা উপহার “বাংলাদেশ আজ মেতেছে খেলায় ” থিম সং টি নিয়ে হাজির গীতিকার, শিল্পী ও কলাকৌশলীরা।

ব্যাটিং ও বোলিং উভয় পাশেই আছে বাংলার হুংকারের সুর।শিল্পীরা সাংবাদিকদের বলেন গানের কথা ও সুর আমাদের বিমোহিত করেছে তাই আমরাও আমাদের সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করেছি।আশা করি গানটি সকলের হৃদয়ে দোলা দিবে।আমাদের সব গুলো কাজের ভিতর এটা একটা অন্যতম কাজ।ঢাকা ও ঢাকার বাহিরে বিভিন্ন লোকেশনে এ গানের চিত্র ধারণ করা হয়েছে।

সাংবাদিকদের কন্ঠ শিল্পী রাকিব স্টালিন বলেন-জয়ের দ্বারায় বাংলাদেশের অভিযাত্রা এখন কোনো দূর্ঘটনা নয়।প্রকৃত অর্থে বলতে গেলে যে অবস্থায় ভারত ও শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপ জিতে ছিলো বাংলাদেশের বর্তমান দল দিয়ে জনগণ আশা করে তার থেকেও ভালো অবস্থান বাংলাদেশের। তাই বিশ্বকাপ জয় করবে এটা শুধু স্বপ্নই নয় বরং খুব হাতের কাছে পৌঁছানো যায় এমন একটি গন্তব্য।আমরা চাই শেষ হাসিটা বাংলাদেশের হোক।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী শান শায়েক বলেন-১৬ কোটি বাঙালির হৃদয়ে গানটিকে ধারণ করে বাংলাদেশের ১১ জন খেলোয়াড় যদি সত্যিই তারা এ গানের মন্ত্রে উজ্জীবিত হয় আমরা আশা করি এ গানের প্রতিটি কথা,প্রতিটি বিট,তাদের ভিতর এমন একটা অনুরণন, একটা দেশাত্মবোধ, একটা তাগিদ তৈরি করবে।আমরা আশা করি বিশ্বের মঞ্চ কাঁপাবে এবার টাইগার টিম বাংলাদেশ।

আর এক জনপ্রিয় তারুণ্যের অহংকার সংগীত শিল্পী সুজন আহমেদ বলেন-আমাদের এ গানটির মাধ্যমে আমরা আমাদের খেলোয়াড়দের এই বার্তাই দিতে চাই বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জয় সত্যিই সম্ভব। আমাদের এ আত্নবিশ্বাস টুকু রাখলেই হবে বাকি পারফরম্যান্স তোমরা মাঠে দেখিয়ে দাও।ইনশাআল্লাহ জয় আমাদের হবেই।

এ বিষয়ে গীতিকার ইসমাইল হোসেন সৌরভ বলেন মা,মাটি ও মানুষের ভালোবাসায় উদ্বুদ্ধ হয়ে গানটি লিখেছি, সুর করেছি।গানটি যদি খেলোয়াড় ও বাঙালির মনে দোলা দেয় সেখানেই আমাদের সার্থকতা।ইনশাআল্লাহ বিজয় উল্লাস মেতে উঠতে চাই।এগিয়ে যাও বাংলাদেশ। এ গানের শুরুটা ২০১৪ সালে হলেও এর পরিনতি পায় ২০২২ সালে বিশ্বকাপের মাঠ কাঁপাতে।

About zahangir press

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap