শিরোনামঃ

আজ শনিবার / ১৪ই মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / শীতকাল / ২৮শে জানুয়ারি ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ / ৫ই রজব ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় সকাল ৬:০৫

চাটমোহরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহরে শেফালী খাতুন (৩৫) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। লাশ তার স্বামীর বাড়ি থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

শেফালীর আত্মীয়-স্বজন লোকজনের ভাষ্য, মৃত্যুর আগে তাকে মারপিট করা হয়েছে। তার মৃত্যু কীভাবে হয়েছে, সেটা পুরোটা নিশ্চিত হতে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন চাটমোহর থানার ওসি মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

এদিকে ঘটনার পর বাড়ি থেকে সটকে পড়েছেন শেফালীর সতীন বাছিরুন ও স্বামী আলাউদ্দিন। আর শেফালীর বসতঘর থেকে আসবাবপত্র নিয়ে গেছেন তার স্বজনরা।

আলাউদ্দিনের বাড়ি উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের সেনগ্রাম মোহাজেরপাড়া গ্রামে, পেশায় তিনি রিকশাচালক। বছর দুয়েক আগে শেফালীকে বিয়ে করেন। এর আগে শেফালী নুর মোহাম্মদ নামের একজনের স্ত্রী ছিলেন, সে ঘরে তার দুই মেয়ে রয়েছে। দ্বিতীয় বিয়ের পর বিদেশে যান শেফালী, ঘটনার বেশ কিছুদিন আগে স্বামীর বাড়ি ফিরেছিলেন। আলাউদ্দিনের ঘরে মা হননি তিনি। তার সতীনের ঘরে সন্তান রয়েছে তিনটি।

এলাকাবাসী জানায়, শেফালীর প্রথম পক্ষের প্রথম মেয়ের বিয়ে ছিল গত সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি)। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে রাতে আলাউদ্দিনের বাড়িতে ফেরেন। প্রতিবেশিরা রাতে আলাউদ্দিনের বাড়িতে ঝগড়া শুনতে পান।

পুলিশ সূত্র জানায়, ঘটনার আগে নিজের ঘরে রাতযাপনের জন্য স্বামীর কাছে আবদার করেন শেফালী। সতীন তাতে বাধা দিলে এনিয়ে ঝগড়া শুরু হয়। পরে শেফালী নিজের বসতঘরের ডাবের সাথে ফাঁস দেওয়ার চেষ্টা করেন। বিষয়টি টের পেয়ে স্বামী ও সতীনসহ বাড়ির লোকজন তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে পাবনা সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। পরে পাবনা সদর হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মঙ্গলবার ভোরে তার মৃত্যু হয়। লাশ বাড়িতে আনার পর স্বামী ও সতীন পালিয়ে যায়।

নুর মোহাম্মদের ভাগ্নি বেনু খাতুন জানান, তার মামী আত্মহত্যা করেছে- এ খবর পান ভোর রাতে। এরপর আলাউদ্দিনের বাড়িতে আসেন। তার দাবি- শেফালীর শরীরে তিনি আঘাতের একাধিক চিহ্ন দেখেছেন।

ওসি মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, ইউডি মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যু কীভাবে হয়েছে, সেটা জানা যাবে।

About zahangir press

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap