শিরোনামঃ

আজ বৃহস্পতিবার / ৯ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / গ্রীষ্মকাল / ২৩শে মে ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১৫ই জিলকদ ১৪৪৫ হিজরি / এখন সময় সকাল ৮:২২

চাটমোহরে ঐতিহ্যবাহী চড়ক পূজা ও মেলা শুরু

নিজস্ব প্রতিনিধি : আজ শনিবার ১৩ এপ্রিল পাবনার চাটমোহর উপজেলার বড়াল নদীর তীরে বোঁথড় গ্রামে শুরু হয়েছে ঐতিহ্যবাহী বিখ্যাত ‘চড়ক মেলা’। হিন্দু সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যের অংশ হিসেবে এই চড়ক মেলা চলে আসছে হাজার বছর ধরে। চৈত্রের শেষ সপ্তাহে এই মেলা বসে। চৈত্র মাসের শেষ দিন থেকে শুরু হয়ে চলবে তিনদিন ব্যাপী। আগে মেলা চলত পুরো বৈশাখ মাসব্যাপী। পাবনার চাটমোহরের ঐতিহ্যবাহী বোঁথড় চড়ক মেলার সেই জৌলুস আজ আর নেই। তবুও আছে চড়ক গাছ, পাঠ ঠাকুর, বিগ্রহ মন্দির। তাই বছর শেষের এ মাসটিতে এখনো মেলা বসে, টিমটিম করে হলেও চলে তিনদিন ব্যাপী। বোঁথড়ের চড়ক মেলা দারিদ্র্যে জর্জরিত পশ্চাৎপদ বিল পাড়ের গ্রামীণ মানুষের এক ঘেঁয়ে নিরানন্দ জীবনে সাময়িকভাবে হলেও আনে কিছুটা বৈচিত্র্যের স্বাদ। এমন এক সময় ছিল, যখন মেলার দেড়-দু’মাস আগেই বড়াল নদীর পাড়ের চাটমোহর উপজেলার বোঁথর গ্রামটিতে পড়ে যেত সাজসাজ রব। দূর-দূরান্ত থেকে দোকানিরা এসে তাদের পসরা সাজিয়ে বসত। দুঃসাহসিক আর গা শিউরানো নানান খেলাসহ যাত্রা, নাগরদোলা, জাদু প্রদর্শন, ঘোড়দৌড় ও পুতুল নাচের এক দীর্ঘমেয়াদি উৎসব আমেজে ভরে উঠত গোটা অঞ্চল। এখন ঘর-বাড়ি আর স্থাপনায় সংকুচিত হয়েছে মেলার জায়গা। মেলার বুক চিঁরে মহাদেব মন্দিরের সামনে দিয়ে বয়ে গেছে পাকা সড়ক। বোঁথড় চড়ক মেলার জৌলুস কমলেও এখনো ঐতিহ্যবাহী আনুষ্ঠানিকতা আছে। বাঙ্গালী লোক সংস্কৃতির এই বৃহৎ উৎসবটি এখন মহাকালের সাক্ষী হয়ে কোনোমতে টিকে আছে মাত্র। মন্দির চত্বরেই বিখ্যাত চড়ক মেলা। এই পূজা অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য মহাদেব মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিরেন বাবু সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন। চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সেলিম রেজা জানান, পূজা ও মেলা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে সম্পন্ন করতে আইনশৃংখলা বাহিনী জোরদার করা হয়েছে।

About zahangir press

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap