শিরোনামঃ

আজ সোমবার / ২০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / হেমন্তকাল / ৫ই ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ / ১০ই জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় রাত ১:২৬

চলে গেলেন ‘বইয়ের ফেরিওয়ালা’ পলান সরকার

স্বাধীন খবর ডেস্ক : একুশে পদকপ্রাপ্ত বইপ্রেমিক পলান সরকার আর নেই। শুক্রবার দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে নিজ বাড়িতে মারা যান তিনি। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে পলান সরকারের ছেলে ও খাগড়বাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হয়দার আলী।

তিনি জানান, তার বাবা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। শনিবার সকাল ১০টায় বাঘার হারুন অর রশীদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

এরপর পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হবে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম শোক জানিয়েছেন। বার্ধক্যজনিত কারণে দীর্ঘদিন অসুস্থ ছিলেন তিনি।

পলান সরকারের গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের বাউশা পূর্বপাড়া গ্রামে। নিজের টাকায় বই কিনে পাঠকের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিতেন পলান সরকার। বই পড়ার এমন আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য তাকে ২০১১ সালে একুশে পদকে ভূষিত করা হয়।

দেশের জাতীয় দৈনিকগুলোতে তাকে নিয়ে প্রতিবেদন ছাপা হয়। তাকে নিয়ে ‘সায়াহ্নে সূর্যোদয়’ নামে একটি নাটক তৈরি হয়েছে। পলান সরকারের আসল নাম হারেজ উদ্দিন। তবে দেশব্যাপী তিনি পলান নামেই পরিচিতি পেয়েছেন।

১৯২১ সালে জন্ম নেয়া এই বই পাগল গুণী ব্যক্তিটি প্রথমদিকে স্থানীয় একটি উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিলি শুরু করেন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেধা তালিকায় ১ থেকে ১০ ক্রমিক নম্বরদের তিনি একটি করে বই উপহার দিতেন।

তবে এর কিছুদিন পর থেকে সবাইকেই বই দেয়া শুরু করেন। এভাবে পায়ে হেঁটে একটানা ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে বই বিলি করেছেন পলান সরকার। তাঁর ৬ ছেলে তিন মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap