শিরোনামঃ

আজ শনিবার / ১৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ / হেমন্তকাল / ৩রা ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ / ৮ই জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি / এখন সময় বিকাল ৫:২৪

ঈশ্বরদীতে পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের অভিযোগকৃত অটো রাইস মিল পরিদর্শন

সেলিম আহমেদ, ঈশ্বরদী থেকে : ঈশ্বরদী উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের আইকে রোডের বড়ইচরা ও ভেলুপাড়ায় অবস্থিত অটো রাইস মিল পরিবেশ অধিদপ্তরের নিয়মনীতি না মেনে উন্মুক্ত স্থানে দূষিত বর্জ্য ফেলার অভিযোগ উঠেছে। এলাকাবাসির অভিযোগের ভিত্তিতে খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, অটো রাইস মিলের দুর্গন্ধযুক্ত বিষাক্ত পানি, ধানের তুষ, ছাই, ধোয়া ও মেশিনের বিকট শব্দে পরিবেশের বিপর্যয় ঘটেছে। এবিষয়ে দেশের বিভিন্ন জাতীয়, আঞ্চলিক, অনলাইন ও স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর আজ বুধবার দুপুরে অভিযোগকৃত অটো রাইস মিল পরিদর্শন করলেন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয় বগুড়ার পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র কেমিষ্ট আসাদুজ্জামান, সিনিয়র কেমিষ্ট আতাউর রহমান ও জুনিয়র কেমিষ্ট মাসুদ রানা।
পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের অভিযোগকৃত অটো রাইস মিল পরিদর্শনের পর মতবিনিময় সভায় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, ঈশ্বরদী উপজেলা পরিবেশ রÿা কমিটির সভাপতি মজিবর রহমান, ঈশ্বরদী পৌর কাউন্সিলর আবুল হাসম, কাউন্সিলর ফিরোজা বেগম, সলিমপুর ইউপি সদস্য রোজিনা বেগম, বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সভাপতি জাতীয় কৃষক সিদ্দিকুর রহমান কূল ময়েজ, সাধারন সম্পাদক ও জাতীয় কৃষক কিতাব মন্ডল, রেজাউল করিম রেজা, মহির উদ্দিন, দুলাল মন্ডল, সহ-সভাপতি মুক্তার হোসেন, সাধারন সম্পাদক আনসারুল ইসলাম, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও সাবেক কমিশনার হায়দার আলী, উপদেষ্টা জুলহাস উদ্দিন ও আব্দুস সাত্তার।

বক্তারা বলেন, সরকারের পÿ থেকে কৃষি জমিতে কোন প্রকার শিল্প কারখানা স্থাপন নিষেধ রয়েছে। এলাকাবাসির বাধা-নিষেধ উপো করে এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের নিয়মনীতি অনুস্মরণ না করে মিলের দুর্গন্ধযুক্ত পচাঁ পানি, ধানের তুষ, ছাই ও মেশিনের বিকট শব্দে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে তিনটি গ্রামের বাসিন্দারা। দুর্গন্ধযুক্ত পচাঁ পানিতে মাছ মারা যাচ্ছে এবং কৃষকের ÿেতের ফসল হচ্ছেনা। অটো মিলের ছাইয়ের কারণে এলাকার বেশ কয়েকজনের চোখের ÿতি হয়েছে। এছাড়া বাসা-বাড়ির বিছানা ও আসবাবপত্র ছাইয়ে নষ্ট হয়ে যায়। এর প্রতিকার চেয়ে এলাকার কয়েক’শ নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ ও শিশু আইকে রোডে মানব-বন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন এবং মাননীয় ভূমিমন্ত্রীর সহযোগিতা চেয়ে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। নতুন অটো রাইস মিল স্থাপনের অনুমোতি না দেয়ার জন্য কর্তৃপÿকে অনুরোধ করেছি।
উপজেলা পরিবেশ রÿা কমিটির সভাপতি মজিবর রহমান পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের কছে অভিযোগ করে বলেন, আইকে রোডের বড়ইচরা ও ভেলুপাড়ায় পরিবেশ অধিদপ্তরের নিয়মনীতি না মেনে উন্মুক্ত স্থানে দূষিত বর্জ্য ফেলে থাকেন। নিয়ম না মানা ওই মিলের দুর্গন্ধযুক্ত বিষাক্ত পানি, ধানের তুষ, ছাই, ধোয়া ও মেশিনের বিকট শব্দে পরিবেশের ব্যাপক ÿতি হচ্ছে। মিল কর্তৃপÿের কাছে স্থাপিত অটো রাইস মিল পরিবেশ বান্ধব করার দাবি জানিয়ে বারং বার বৈঠক করেও কোন লাভ হয়নি। উল্টো তারা পরিবেশ অধিদপ্তরের নিয়মনীতিকে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে ÿমতার প্রভাব খাটিয়ে মিল চালিয়ে যাচ্ছেন। দুই একজন অটো মিল মালিক নিয়ম বহিভূত ভাবে মিল চালিয়ে ফুলে ফেঁপে মোতাতাজা হলেও তিনটি গ্রামের সাধারন মানুষ ÿতিগ্রহস্থ হচ্ছেন।
পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলেন, অভিযোগ পেয়ে আমরা ঈশ্বরদীর বড়ইচারার অটো মিল পরিদর্শনে এসেছি। এলাকাবাসির অভিযোগের প্রেÿিতে সরেজমিন পরিদর্শন করেছি। অভিযোগকারী ও ÿতিগ্রহস্থ ব্যক্তিদের সাথে কথা বলেছি। কারও কোন কিছু ÿতি করে শিল্প কারখানা স্থাপন সম্ভব নয়। আমরা আপনাদের কথা উদ্ধর্তন কর্তৃপÿেকে অবগত করবো।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap