শিরোনামঃ

আজ বুধবার / ৯ই শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ / বর্ষাকাল / ২৪শে জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ / ১৮ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি / এখন সময় সকাল ৭:২৫

আজ সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী মৃত্যু বার্ষিকী

স্বাধীন খবর ডেস্ক : করোনায় আক্রান্ত হয়ে সাংবাদিক, ভাষা সৈনিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী মৃত্যু কাছে হার মেনে পরপারে পাড়ি জমিয়েছিলেন ২০২০ ইং সালে ২০ জন। তিনি ২০১৫ সালে সাংবাদিকতায় একুশে পদক পান। কামাল লোহানী।
‌কামাল লোহানী‌কে বুধবার (১৭ জুন) ২০২০ ইং তারিখে সকা‌লে রাজধানীর হেলথ এন্ড হোপ হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হ‌য়ে‌ছিলে। হাসপাতা‌লে ভ‌র্তির পর তাঁর শারী‌রিক অবস্থার আরো অবনতি হয়। বার্ধক্যজ‌নিত নানা সমস্যায় ভুগ‌ছিলেন।
ফুসফুস ও কিডনির জটিলতা ছাড়াও হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের সমস্যাতেও ভুগছেন ৮৬ বছর বয়সী প্রবীণ এই সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব।
কর্মজীবনে কামাল লোহানী দৈনিক মিল্লাত পত্রিকা দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। এরপর আজাদ, সংবাদ, পূর্বদেশ, দৈনিক বার্তায় গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করেছেন। সাংবাদিক ইউনিয়নে দুই দফা যুগ্ম সম্পাদক ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতেও দুইবার মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন এই বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব। ছায়ানটের সম্পাদক ছিলেন পাঁচ বছর। কামাল লোহানী উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটেরও উপদেষ্টা।

জন্ম ও পারিবারিক জীবনঃ
কামাল লোহানীর জন্ম তৎকালীন পাবনা ও বর্তমানে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া থানার সনতলা গ্রামে। বাবা আবু ইউসুফ মোহাম্মদ মুসা খান লোহানী। মা রোকেয়া খান লোহানী।

শিক্ষাঃ
প্রথমে কলকাতার শিশু বিদ্যাপীঠে পড়াশুনা শুরু করেন। দেশভাগের পর ১৯৪৮ সালে পাবনা চলে আসেন। ভর্তি হন পাবনা জিলা স্কুলে। ১৯৫২ সালে মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর ভর্তি হন পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে। এই কলেজ থেকেই উচ্চমাধ্যমিক পাস করেন।

মৃত্যুঃ
কামাল লোহানী ২০ জুন ২০২০ সালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

About zahangir press

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Share via
Copy link
Powered by Social Snap